আজ রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০৩:২৭ অপরাহ্


জমালগঞ্জে শিলা বৃষ্টি কেড়ে নিল কৃষকের আনন্দ

বিশেষ প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলার হালি হাওরে বৈশাখীর আমেয নেই কৃষক কৃষানির মুখে। অনাবৃষ্টি শিলা বৃষ্টি কেড়ে নিল কৃষকের আনন্দ, এখন শুধু হাহা কার।

গতকাল মঙ্গলবার(২৩শে এপ্রিল)সরেজমিনে উপজেলার হালির হাওর দেখতে যান জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনের (চশমা প্রতিক) ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও সাংবাদিক আব্দুল আহাদ।

এসময় সাথে ছিলেন জামালগঞ্জ উত্তর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মুজাফর মিয়া, মোমিনপুরের হাওর বান্ধব গন্য মান্য ব্যাক্তি আঃ মতলিব, ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হান্নান,মোমিন পুরের মুতালিব,মুসলিম,শমসের আলী,আঃ আলী,জামাল মিয়া, কামিনীপুরের গন্য মান্য ব্যাক্তি জাকির হোসেন,সেলিম, যুবলীগ ওয়ার্ড সভাপতি মাহবুব আলম পাশা, কালীপুরের আমির হোসেন, মলিহোসেন তাং কালীপুর মাদরাসার সহকারী শিক্ষক মাওঃ আব্দুল ওয়াদুদ ও নাম না জানা আরও অনেকেই।

এসময় সাংবাদিক আব্দুল আহাদকে এলাকার কৃষকরা বলেন সাংবাদিক ভাই কি আর বলব, আপনার চোখের সামনেই কাটা ধান আছে। এই ধান দিয়ে কিভাবে পরিবার লালন পালন ও বাচ্চাদের লেখাপড়া, গরু ছাগল পালন করব, এই নিয়ে কৃষক কূল দিশাহারা।

কৃষকরা আরও বলেন ধানকাটার শ্রমিক সংকটের কারনে প্রতিদিনই ৫/৬ শত টাকা রোজের লোক দিয়ে ধান কাটতে হয়। এখানেই শেষ নয়, ধান কেটে বাড়ি নেওয়ার পর হিসেব নিকেশ করে দেখাযায় প্রতি মন ধানের দাম কোন কোন ক্ষেত্রে ১হাজার থেকে দেড় হাজার টাকা পর্যন্ত ।এ যেন মরার উপর খারার ঘা।

হাওর বাসীর দাবী সরকার বাহাদুর যেন যে কোন দূর্যোগে আমাদের পাশে থাকেন।