আজ শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৪:২০ অপরাহ্


বিয়ে পণ্ড করে কনেকে অপহরণকালে অস্ত্রসহ আটক ৩

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি:

কথিত প্রেমিকার সঙ্গে বিয়ে না হয়ে অন্যত্র বিয়ে হওয়ায় ঈশ্বরদীতে ক্ষিপ্ত এক প্রেমিক প্রেমিকাকে অপহরণের উদ্দেশ্যে হামলা চালায়। হামলার ঘটনায় অস্ত্রসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১১ জুন) থানা পুলিশ এ ঘটনার মূল হোতা ছলিমপুর ইউনিয়নের কলেরকান্দি বটতলা এলাকার আয়ুব কাজির ছেলে আসিকুর রহমানকে (২২) ৭.৬৫ মিলিমিটার (এমএম) বোরের পিস্তল ও এক রাউন্ড গুলিসহ গ্রেফতার করেন। এদিকে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগে এ ইউনিয়নের চরমিরকামারী এলাকার মন্টু প্রামাণিকের ছেলে শামসুল হক (২৬) ও কলের কান্দি বটতলা এলাকার মঞ্জুর রহমানের ছেলে মেহেরাব হোসেন নাসিম (২৪) গ্রেফতার হলেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাড়ে সাতটায় ছলিমপুর ইউনিয়নের চর মিরকামারি হান্নানের মোড় এলাকার সান্টু প্রামাণিকের বাড়িতে আসিকুর রহমানের নেতৃত্বে ১৫-১৬ যুবক হানা দিয়ে তাঁদের স্কুলে পড়ুয়া মেয়েকে অপহরণের চেষ্টা করে। এ সময় বাড়ির লোকজনের চিৎকারে আশপাশের লোকজন জড়ো হয়ে অপহরণকারীদের ধাওয়া দেন। এতে ঘটনার মূল হোতা আসিকুর, শামসুল ও নাসিমকে স্থানীয়রা আটক করে গণপিটুনি দেন।

স্থানীয় আকরাম হোসেন জানান, ছলিমপুর ইউনিয়নের কলের কান্দি বটতলা এলাকার আসিকুর রহমানের সঙ্গে ওই মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। হঠাৎ করে এক সপ্তাহ আগে বাঘার এক ছেলের সঙ্গে ওই মেয়ের বিয়ের দিন ধার্য করে তার পরিবার। বিয়ের দিন আসিকুর অস্ত্রসহ কয়েক জন যুবক নিয়ে তাকে অপহরণ করার জন্য ওই বাড়িতে যান। এ সময় অপহরণে বাধা দিলে যুবকদের মারধরে ওই ছাত্রীর মা, বোনসহ কয়েকজন আহত হন। পরে তাদের চিৎকারে গ্রামবাসী জড়ো হয়ে অপহরণকারীদের ধাওয়া দিয়ে ৩ জনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন। পরে আসিকুরের দেহ তল্লাশি করে অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহাউদ্দীন ফারুকী জানান, ধারণা করা হচ্ছে কোনো অসৎ উদ্দেশ্যে স্কুলে পড়ুয়া শিক্ষার্থীকে পরিকল্পিতভাবে অপরহণ করা হচ্ছিল। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামিরা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। অস্ত্র উদ্ধার ও অপহরণের ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।