আজ রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ০২:২৬ অপরাহ্


যশোরের কুয়াদায় এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ২১লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

ইমরান হোসেন মিলন,খুলনা বিভাগীয় ব্যুরো চীফঃ যশোরের কুয়াদায় সেনাবাহিনীতে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে সোহরাব নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ২১ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার বিস্তর অভিযোগ উঠেছে।
জানা যায়,যশোর সদর উপজেলার রামনগর ইউনিয়নের কুয়াদা বাজুয়াডাঙ্গা গ্রামের মৃত মানিক দায়ের ছেলে সোহরাব দায় (৪৫) সেনাবাহিনীতে চাকরি করতেন। বর্তমানে সে অবসরপ্রাপ্ত। চাকরি করার সুবাদে সেনাবাহিনীর অফিস সহ-কারী পদে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ভুয়া নিয়োগ পত্র দিয়ে খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার,সাচবুনিয়া গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে ফজলে রাব্বীর (২২),কাছ থেকে ৭ লাখ টাকা,খুলনা রুপসা উপজেলার রামনগর গ্রামের ইকবাল মৃধার ছেলে রিয়াজ মৃধার (২০) কাছ থেকে ৭ লাখ টাকা ও খুলনা বাগেরহাট উপজেলার সোলেমবাড়িয়া গ্রামের আবুল কালাম শিকদারের ছেলে হাফিজুল ইসলামেরর (২৩) কাছ থেকে ৭ লাখ টাকা টাকা করে মোট এই ৩ জনের কাছ থেকে ২১ লক্ষ টাকা হাতিয়েছে বলে ভুক্তোভোগীরা জানিয়েছন। এই প্রতারক সোহরাব অতিকৌশলে তাদের মগজ ধুলায় করে এ অর্থ হাতিয়েছে। ভন্ড সোহরাব চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে অবৈধ সম্পদের পাহাড় গড়েছেন বলে একাধিক সূত্র জানিয়েছে। তার বিরুদ্ধে এর আগে ও নানাবিধ অভিযোগ রয়েছে। এলাকায় সে চিটার সোহরাব নামে ব্যাপকভাবে পরিচিত। এই আলোচিত ব্যক্তি এর আগে ঢাকার ডিবি পুলিশের হাতে ধরা পড়েছিলো বলে একটি সূত্র নিশ্চিত করেছেন। এ দিকে সোমবার ১২ টার দিকে ভুক্তোভোগীরাসহ প্রশাসনের লোকজন তাকে কুয়াদার বাসায় খুঁজতে এলে সোহরাব কৌশলে পালিয়ে যায়। এ বিষয়ে সোহরাবের ব্যবহৃত ০১৭১৮-৭৭৫৮২৪ নম্বর মোবাইল ফোনে বার বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে ও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।
এ বিষয়ে ভুক্তোভোগীরা সংশ্লিষ্ট ঊর্ধবতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১