আজ মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ১১:৩৪ অপরাহ্


কচুয়ায় জনবল সংকট ॥ ইউএনও নেই দু’মাস ধরে

কচুয়া (চাঁদপুর) প্রতিনিধি: জনবল সংকটে রয়েছে চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলা প্রশাসন। এ উপজেলা প্রশাসনের তথ্যকেন্দ্র,বনবিভাগ, নির্বাচন অফিস, তথ্য ও যোগাযোগ, খাদ্য, পুলিশ বিভাগ, পল্লী বিদ্যুৎ্ ও সাব-রেজিষ্ট্রি অফিস ছাড়া বাকি ২৮টি দপ্তরে ৬০৪ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীর মধ্যে ২১২টি পদই শূন্য। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বদলী জনিত কারনে এ পদে প্রায় দুই মাস ধরে শূন্য রয়েছে। নির্বাহী কর্মকর্তার অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন পার্শ্ববর্তী হাজীগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা বৈশাখী বড়–য়া। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে ৯টি পদ শূন্য রয়েছে। উপজেলা ভূমি বিভাগে ৫২টি পদের মধ্যে ১৬টি পদ শূন্য রয়েছে।
উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) একি মিত্র চাকমা বলেন, ‘ভূমি বিভাগে জনবল সংকটের কারণে কর্মকর্তাদের ওপর কাজের চাপ বেড়েছে। কাজের বিঘœ না ঘটার ক্ষেত্রে নজর রাখছি।’ স্বাস্থ্য বিভাগে ১২৭টি পদের মধ্যে ৬১টি পদই শূন্য। ২১ জন চিকিৎসকের মধ্যে নেই ১২ জন চিকিৎসক।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সালাহউদ্দীন মাহমুদ বলেন, ‘বিরাজমান সমস্যা দূরীকরণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে দফায় দফায় অনুরোধ জানানো হয়েছে। উপজেলা কৃষি বিভাগে ৪৮ পদের মধ্যে অতিরিক্ত কৃষি কর্মকর্তা, একজন কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ও ১১ জন উপ-সহকারী কর্মকর্তাসহ ১৯টি পদ শূন্য রয়েছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ আহসান হাবীব বলেন, কাজের ব্যত্যয় না ঘটানোর লক্ষ্যে আমার দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা প্রতিনিয়ত দ্বিগুণ কাজ করে যাচ্ছেন।
উপজেলা শিক্ষা অফিসার এ.এইচ শাহরিয়ার রসুল বলেন, ‘জনবল সংকটে কাজকর্ম পরিচালনায় খুবই হিমশিম খেতে হচ্ছে। এ উপজেলায় ১৭১টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১৩টি প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য আছে। নাঙ্গলকোট উপজেলার সেটেলমেন্ট অফিসার এ উপজেলার অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন।
পল্লী উন্নয়ন দপ্তরে (বিআরডিবি) ১১টি পদের মধ্যে নেই পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা, ১জন সহকারী পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা ও ১জন হিসাবরক্ষক। সহকারী পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা আবুল হাসনাত ভারপ্রাপ্ত পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।
যুব উন্নয়ন বিভাগে ৭টি পদের মধ্যে ১জন ক্যাশিয়ার নেই। মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ে ৬টি পদের মধ্যে ১জন হিসাবরক্ষক নেই।
কচুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ওয়ালী উল্যাহ অলি জানান, পুলিশ বিভাগে শূন্যপদ না থাকলেও কচুয়া থানার উত্তরে বায়েক থেকে দক্ষিণে জগতপুর পর্যন্ত প্রায় ৪০ কিলোমিটার সড়কে ৬টি মোবাইল টিম দিয়ে ডিউটি অব্যাহত রেখে চুরি, ছিনতাই, মাদক সেবন ও মাদক ব্যবসা প্রতিরোধ করা হচ্ছে।
কচুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব প্রাপ্ত) বৈশাখী বড়ুয়া জনবল সংকটের কারণে কাজের ধীরগতি সৃষ্টি হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমি শিগরিই উপজেলা বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনায় মিলিত হয়ে তাদের জনবল সংকট নিরসনে ব্যবস্থা নিতে স্ব-স্ব বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিব।

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১