আজ বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১, ০৭:৩৫ পূর্বাহ্ন


জৈন্তাপুরের দরবস্ত বাজারে সেন্ট্রাল জৈন্তা উচ্চ বিদ্যালয়ে অতিরিক্ত ভর্তি ফি এবং বেতন আদায়ের প্রতিবাদে মানববন্ধন

জৈন্তাপুর প্রতিনিধিঃ সিলেট জৈন্তাপুর উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের সেন্ট্রাল জৈন্তা উচ্চ
বিদ্যালয়ে অতিরিক্ত ভর্তি ফি, বেতন আদায় ও এসএসসি পরীক্ষার্থীর প্রবেশ প্রত্র না পাওয়ার
প্রতিবাদে উপজেলার দরবস্ত ত্রিমুখীতে পয়েন্টে অভিভাবক ও সচেতন নাগরিক সমাজ মানববন্ধন পালন
করেছে ।
১৭ ফেব্রুয়ারি সোমবার দুপুর ২টায় আব্দুর রশিদ ফেড়াই মিয়ার সভাপতিত্বে ও খলিলুর রহমান‘র
পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সেন্ট্রাল জৈন্তা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতার উত্তরাধীকারী
অভিভাবক মনহর মামুন, অভিভাবক আবু বক্কর সিদ্দিক রায়হান, মাসুম আহমদ, সমছুর উদ্দিন, মনফর
আলী, হরমুজ মিয়া, বশির আহমদ, আমান উল্লাহ আমান, আতাব উদ্দিন, মাসুক আহমদ প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, দরবস্ত এলাকা দরিদ্র পিড়িত ও জনবহুল এলাকা, বেশির ভাগ মানুষ শ্রমজীবী,
কিন্তু তাদের সন্তানদের লেখা-পড়ার একমাত্র ঐহিত্যবাহী মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সেন্ট্রাল জৈন্তা
উচ্চ বিদ্যালয়। কয়েক বৎসর যাবৎ বিদ্যালয়টি দরিদ্র এলাকার শিক্ষার্থীদের নিকট হতে বিভিন্ন খাত
দেখিয়ে অতিরিক্ত ভর্তি ফি, এবং বেতন আদায় করে আসছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।
এলাকার সচেতন মহল এ নিয়ে প্রতিবাদ করার পরও কর্তৃপক্ষ কর্ণপাত করেনি। এ নিয়ে ১২ জানুয়ারী
২০২০ সনে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) বরাবরে লিখিত আবেদন করা হয় এবং ২০
জানুয়ারী মহাপরিচালক মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, ঢাকায় লিখিত অভিযোগ প্রেরণ
করা পরও বর্ধিত ফি কমেনি। সরকারি বিধি মোতাবেক ভর্তি ফি, বেতন না নিয়ে মনগড়া ভর্তি
ফি এবং বেতন আদায় করা হচ্ছে শিক্ষার্থীদের নিকট হতে। এমন পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা
বন্ধ করে দিতে বাধ্য হবে দরিদ্র পরিবারের অভিভাবক বৃন্দরা।
এ ব্যপারে সেন্ট্রাল জৈন্তা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শরিফ উদ্দিন লিটু বলেন, অভিভাবক ও
কমিটি নিয়ে আলোচনা করে বর্ধিত ফি পূর্বের চেয়ে কমানো হয়েছে এবং প্রতিবাদের সাথে
আমাদের কোন সম্পর্ক নাই।

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯