আজ বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১০:৩২ অপরাহ্


কচুয়ায় ৩ মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগ

সাইফুল ইসলাম সুমন, কচুয়া ॥
কচুয়া উপজেলার পূর্ব বিতারা জামালিয়া নূরানীয়া হাফেজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানায় এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে ৩ ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ওই শিক্ষক ওমর ফারুকের শাস্তির দাবিতে ফুসে উঠেছে এলাকাবাসী। ওই শিক্ষার্থীরা হলেন বিতারা গ্রামের হারুনুর রশিদের ছেলে (১০) মমতাজ উদ্দিনের ছেলে (১০) ও জসিম উদ্দিনের ছেলে (৯)।
নিপীড়নের শিকার আমপারা বিভাগের ছাত্ররা জানান, মাদ্রাসায় রাতে ঘুমিয়ে থাকলে মাদ্রাসার শিক্ষক ওমর ফারুক বিভিন্ন সময় আমাদের ঘুমন্ত অবস্থায় কোলে করে তার খাটিয়ায় নিয়ে বলাৎকারের জন্য আমাদের উপরে ঝাঁপিয়ে পড়ে। এক ছাত্রের বাবা মমতাজ মিয়া ও অপর এক ছাত্রের দাদা তৈয়ব আলী ও ভগ্নিপতি ইব্রাহিম খলিল অভিযুক্ত ওই শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। এলাকাবাসী জানান, এ ঘটনায় ৪ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির সদস্যরা হচ্ছেন, বিতারা আলিম মাদ্রাসার সহ-সুপার রেদোয়ান আহমেদ, সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রব, স্থানীয় অধিবাসী মাও. আব্দুর রহিম ও নুরুল ইসলাম। তদন্ত কমিটি অনুসন্ধানে ঘটনার সত্যতা পেয়েছে বলেও স্থানীয়রা দাবী করেন।
এ ঘটনার পর অভিযুক্ত শিক্ষক ওমর ফারুক মাদ্রাসা এলাকা ছেড়ে তার নিজ এলাকা দাউদকান্দিতে গা ঢাকা দিয়েছেন।
বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, ঘটনাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে ওই শিক্ষকের পক্ষ নিয়ে কটি বিশেষ মহল বলাৎকারের শিকার শিক্ষার্থীদের বাবা মাকে বিভিন্ন ভাবে ভয় ভীতি দেখাচ্ছেন।
মাদ্রাসার সেক্রেটারী মো. শাহআলম প্রধান জানান, ছাত্রের বলাৎকারের বিষয়টি শুনেছি।এ নিয়ে গত বৃহস্পতিবার সালিশ-বৈঠকে অভিযুক্ত শিক্ষক ওমর ফারুক ঘটনার বিষয়ে অস্বীকার করেছেন। তবে মাদ্রাসার স্বার্থে তাকে আমরা বিদায় করে দিয়েছি।

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১