আজ শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০১:৩১ পূর্বাহ্ন


মানুষের সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করতে চান রাশিদুল ইসলাম রাশেদ

ইসমাইল হোসেন বিপ্লব ।।
আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে উৎসবমুখর পরিবেশে সৃষ্টি হয়ছে। নির্বাচন যত ঘনিয়ে আসছে জনগণের উৎবেগ আর উৎকণ্ঠা ততই বাড়ছে। বাঞ্ছারামপুর উপজেলার ফরদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য সাকসেস গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশিদুল ইসলাম রাশেদ ব্যাপক প্রচার ও প্রচারনা চালাচ্ছেন ।

জানাগেছে,বাঞ্ছারামপুর উপজেলার মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ ইউনিয়ন হলো ৯ নং ফরদাবাদ ইউনিয়ন। এই ইউনিয়নের নির্বাচনকে সামনে রেখে জমে উঠেছে প্রচার- প্রচারণা ফরদাবাদের শান্তির বাজার, রবির বাজার, শেখ হাসিনা সেতু, চরলহনীয়, পূর্বহাটি, নিজকান্দি, কলাকান্দি ও গাওরাটুলির প্রতিটি অলিগলি পাড়া মহল্লা। আওয়ামী লীগের পাশাপাশি এই ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থীরাও কৌশলে মাঠে নেমে পড়েছে। ২০২১ সালের মার্চে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে ফরদাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীরা বিভিন্নভাবে প্রচার প্রচারণা শুরু করায় পুরো ইউনিয়নেই নানা জল্পনা কল্পনা শুরু হয়েছে।

রাশিদুল ইসলাম রাশেদ ফরদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়নের জন্য চেষ্টা করছেন। ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হলে দূনীর্তি,হিংসাতক মনোভাব পরিহার করে ফরদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়নের জন্য চেষ্টা করছেন। ফরদাবাদ ইউনিয়নকে একটি আকর্শনীয় পর্যটন কেন্দ্র রুপান্তিরিত করে দূনীতিমুক্ত,মাদক মুক্ত, পরিচ্ছন্ন,আধুনিক,নাগরিক দূর্ভোগ মুক্ত ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলতে চান। এলক্ষ্যে তিনি এবার ফরদাবাদ ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে বিভিন্ন স্তরের মানুষের সাথে কথা বলে মানুষের চাওয়া,পাওয়া এবং জনদূর্ভোগের কথা শুনেছেন। তিনি ইউনিয়নের সমস্যা ও তার সমাধান,নির্বাচনী পরিকল্পনা,চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হলে তার উন্নয়ন-পরিকল্পনার নিয়ে কথা বলেছেন।

এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর তালিকা দীর্ঘ হলেও এখন পর্যন্ত জনমত জরিপে জনপ্রিয়তায় শীর্ষে অবস্থান করছেন মরহুম শিশু মিয়া মাষ্টারের ছেলে ও বাঞ্ছারামপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য সাকসেস গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশিদুল ইসলাম রাশেদ । তাঁর সামাজিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে এলাকাবাসীর বিশ্বাস ও আস্থায় পরিণত হয়েছেন। বিশেষ করে করনোর দুঃসময়ে সাধারণ মানুষের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে তিনি দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। নিজের জীবনের উপর ঝুঁকি নিয়ে চাল, ডাল, তৈল, লবণ, আলু, পেঁয়াজ সহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের বাড়িতে বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছেন। আর সেই কারণেই ফরদাবাদ ইউনিয়নের সাধারণ মানুষ রাশেদের পক্ষে মাঠে নেমে পড়েছে। যার ফলে পুরো ইউনিয়নেই তরুণ প্রজন্মের অহংকার রাশেদ দ্রুত এগিয়ে চলেছে। বাঞ্ছারামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষমহল ও রাশেদের প্রতি বেশ সন্তুষ্ঠ ও আস্থাশীল। বিভিন্নভাবে এলাকার মানুষ ও মানবতার প্রতি রাশেদের ভালবাসা ও সহমর্মিতা প্রকাশ পেয়েছে। রাশেদের সবচেয়ে ভাল দিক সে মরহুম শিশু মিয়া মাষ্টার ছেলে ফলে দিনেদিনে ফরদাবাদ ইউনিয়নে রাশেদের জোয়ার বেড়েই চলেছে। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী রাশিদুল ইসলাম রাশেদ ফরদাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে পারলে উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে এলাকাকে দ্রুত সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন। সেই সাথে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণের পাশাপাশি ক্যাপ্টেন এ বি তাজুল ইসলামের স্বপ্নের ফরদাবাদ ইউনিয়ন গড়ে তুলবেন। আর সেই লক্ষ্যেই তিনি এলাকার মাটি ও মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন।

বাঞ্ছারামপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য সাকসেস গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশিদুল ইসলাম রাশেদ বলেন, উপজেলার ফরদাবাদ ইউনিয়নের সন্তান আমি। আমার পারিবারিক ও সামাজিক ভাবেই সবার কাছে পরিচিত। পরিচিত জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু ও জননেত্রী শেখ হাসিনার আর্দশের সংগ্রমী সৈনিক আ,লীগ পরিবারের সন্তান। আমি সবার দাবি অনুযায়ী ফরদাবাদ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার জন্য প্রার্থী হয়েছে।
সবার চাওয়া ও দাবীর প্রতি সম্মান দিয়েই আমার এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে সার্বিক অবকাঠামোর পরির্বতনের জন্যই আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রার্থী হতে চাই।

আসন্ন ইউপি নির্বাচনী ফরদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে প্রচার প্রচারণা সম্পর্কে বলেন, আমি প্রার্থী হয়েছি এলাকার অসমাপ্ত কাজ গুলো সমাপ্ত কারা জন্য। আমি প্রার্থী ঘোষনা দেওয়ার পর থেকেই আমার ফরদাবাদ ইউনিয়নের সর্বস্থরের জনসাধারন খুবই আন্দদিত। কারন তাদের চাওয়া আমি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রার্থী হয়েছি। এখন যদি তাদের চাওয়া অনুযায়ী দলীয় মনোনয়ন পাই তাহলে তাদের আনন্দের শেষ থাকবে না আমার বিজয় নিশ্চিত করবে সবাই। যার ফলে আমার নেতাকর্মী ও সমর্থক ছাড়াও আমি একজন তরুণ প্রার্থী হিসেবে ফরদাবাদ ইউনিয়নে যেখানইে যাচ্ছি জনগণের ব্যাপক সমর্থন পাচ্ছি। আমাকে সবাই সাদরে গ্রহন করছে।

নির্বাচনে বিজয়ী হলে ফরদাবাদ ইউনিয়ন বাসীর জন্য প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, আমার পরিবারের কোন পিছুটান নেই। অর্থের প্রতি কোন লোভ নেই আছে সম্মান আর জনগনের সেবা করে ভালবাসা পাবার লোভ। ফরদাবাদ ইউনিয়নে সেবা তৃনমূলের জনসাধারনের চাহিদা পরণ করার জন্য কাজ করে যাব। আমি এমন একটি ফরদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ গড়তে চাই যেখানে জনগনের অধিকারের প্রতিফলন ঘটবে। জণগনের যে অধিকার আছে সেই অধিকার ও ফরদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের সেবা তাদের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়ে অবহেলিত মানুষের সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করতে চাই এবং ফরদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদকে একটি জনবান্ধব পরিষদ হিসাবে গড়ে তুলতে চাই। আমি নির্বাচনে ইউপি চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে প্রার্থী হয়ে জয়ী হয়ে অসহায় মানুষের পাশে থেকে তাদের সেবা করতে ।

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১